বাজেট ট্যুর হিসাবে আমার প্রথম ব্যাংকক ও পাতায়া ভ্রমণ — ১

S M Sarwar Nobin
5 min readDec 24, 2019

থাইল্যান্ডে যাওয়ার জন্য ২০১৮ সাল থেকেই চেস্টা করছিলাম। ব্যাংকক ও পাতায়ায়ের সৌন্দর্য আর গ্লামার আমাকে বরাবরই আকর্ষন করত। প্রথম বারের চেস্টায় ভিসা প্রত্যাখান করে দূতাবাস। কারণটা ছিলো আমি শিক্ষার্থী কিন্তু ঘুরতে যাব এটা তো মানায় না! আচ্ছা বাদ দিলাম। এবার একটু ভিন্ন পন্থা নিলাম ভিসা নিতে। তবে সেটা গল্প পাবেন এখানেঃ https://medium.com/@smsnobin77/thaivisa-cbb6a57f4d5e

ভিসা যখন হাতে পেলাম তখন দেখি ভিসার উপর লিখে দেওয়া প্রোগামের নাম আর ৫ দিন থাকতে চাইছি সেটাও। তাই আর রিস্ক নিলাম না। সিদ্ধান্ত নিলাম ৬ দিন থাকব। শুরুতে শুধু ব্যাংকক ঘোরার কথা থাকলে পরে পাতায়ও যোগ করে নিলাম।

আমার আগের নেপাল ট্যুরে hostelworld.com ব্যবহার করে হোস্টেল বুক করলেও এবার agoda.com থেকে হোস্টেল বুক করলাম। আমি সলো ট্রাভেলার তাই বরাবরই আমি হোস্টেলে থাকতে পছন্দ করি। আর আমি জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থ হওয়ার সুবাদে হলে বা ডরমেটরিতে থাকার অভ্যাস আছে তাই বিদেশে হোস্টেলে থাকলে আমার জাত যাবে না। অনেক সাদা চামড়ার ভদ্রলোক এসে হোস্টেলে থাকে। এতে প্রচুর টাকা বাঁচে। কারণ হোটেল সব সময়ই একটু বেশি দামের হয়ে থাকে।

ব্যাংককের জন্য bts nana এর কাছাকাছি 21/10, Sukhumvit 4 এ 4 ডলার পার রাতে একটা হোস্টেল বুক করলাম ৩ দিনের জন্য। এই এলাকাটা নির্বাচন আমার প্রায় ঠিক ছিলো কারণ bts দিয়ে আমি সহজেই ব্যাংককের বিভিন্ন জায়গায় যেতে পরেছি। পাতায়ার জন্য 5 ডলার পার রাতে একটা হোস্টেল বুক করলাম। এটা 366/9 Moo 12, Soi 4 Prathamnak Rd, Phra Tamnak Hill এরিয়াতে তবে এটা মহা ভুল করেছিলাম। আমার উচিত ছিল walking street এর ৫০০ মিটার এর ভিতর হোস্টেল নেওয়া। কারন walking street টাই পাতায়ার central এলাকা টুরিস্টদের জন্য। আমাকে প্রচুর টাকা ব্যয় করতে হয়েছে walking street বা বিভিন্ন জায়গায় প্রতিবার যেতে। ব্যাপার না ভ্রমণে সব টাকারই যথার্থ ব্যবহার হবে এমন না।

হোস্টেলের বেড গুলো এমন হয়।

আমি October এর 4 তারিখ US Bangla এর ফ্লাইটে যাত্রা শুরু করেছিলাম। আমার টিকিটের জন্য ১৫০০০ টাকা পড়েছি। আমি সরাসরি US Bangla এর সাইট থেকে বা এজেন্সি থেকে টিকিট কাটতে পারেন। আমি সাইট থেকে টিকিট কেটে মাইলেজের আহা মরি কিছু পাই নি। আর October মাস থাইল্যান্ড ভ্রমণের জন্য উপযুক্ত সময় বলে আমার মনে হয়েছে।

ফ্লাইট থেকে নেমেই ইমিগ্রেশন শেষ করে লাগেজ নিয়ে চললাম। ইমিগ্রেশনে তারা আমাকে একটা কথাও জিঙ্গাসা করে নাই ফিঙ্গার প্রিন্ট ছাড়া। এরপর বের হয়ে একটা Dtac এর সিম কিনে নিলাম ১৯৯ বাথ (৩ জিবি নেট) দিয়ে ৭ দিনের জন্য এটাই সবচেয়ে সস্তা। এর নিচে নাই মানে এয়ারপোর্টে আপনি চাইলে MBK থেকে টুরিস্ট সিম আরও সস্তায় কিনতে পারেন। মাত্র ১৩০ বাথে একই সিম। যদি আপনার প্রথম দিকে ব্যাংককের রাস্তা ঘাট চেনা থাকে। এরপর এয়ারপোর্টের নিচে নেমে পাতায়া এর বাসের জন্য টিকিট করলাম। ১৩০ বাথ দাম পরেছিলো। আমি বাংলাদেশ থেকে যাওয়ার আগে ৬০০ বাথ কিনে নিয়ে গিয়েছিলাম যেন এয়ারপোর্টেই ডলার ভাঙানো না লাগে।

আমার বাস ছিলো ৪ টায় আমি ১ ঘন্টার বিরতি পেয়েছিলাম। বের ঘুরলাম এদিক সেদিক। তবে Pattaya bas counter এর পাশেই Airport Street food নামে একটা বিশাল ফুড কোর্ট আছে। সেখান যেয়ে ইচ্ছা মত থাই ফুড খেতে পারেন। এয়ারপোর্টে হলেও খাবার যথেস্ট সস্তা এবং মানে ভালো বলে আমার মনে হয়েছে।

এরপর বাসে করে যাত্রা শুরু করলাম পাতায়ার উদ্দেশ্যে। প্রায় ২ ঘন্টা পর পাতায়াতে পৌঁছালাম। বাস থেকে নেমে ট্যাক্সি নিতে পারেন। এদের এখানে ট্যাক্সি বলতে বাইকে বোঝায়। বাস স্ট্যান্ডে থেকে walking street এর এরিয়া যেতে ৮০-১০০ বাথ নিবে ওরা ২০০-২৫০ চেয়ে বসবে দামাদামি করতে হবে। এখানে Grab এর বাইক সার্ভিস নেই তবে কারের সার্ভিস আছে।

এগুলোই থাইল্যান্ডের ট্যাক্সি সার্ভিস।

এরপর হোস্টেলে যেয়ে ফ্রেশ হয়ে বের হলাম walking street দেখতে বেশ ভালোই উপভোগ করলাম। ঘুরে বেড়িয়ে ১ টার দিকে হোস্টেলে এসে ঘুম দিলাম। সকালে ঘুম থেকে উঠে হোস্টেলের লাগোয়া 7eleven এ নাস্তা করে নিলাম। এরপর বের হলাম পাতায়া ঘুরতে।

আমার অনেক দিনের শখ ছিল বাঘ ছুঁয়ে দেখব বাঘের লেজ দিয়ে কান চুলকাবো ;P আজব শখ আমার। বের হয়ে পড়লাম। প্রথমে গেলাম Big Buddha Temple এ হেঁটেই আমার হোস্টেলের খুব কাছে। এরপর সেখান থেকে চলে গেলাম Tiger park এ। 699 বাথে মাঝারি বাঘের সাথে সময় কাটানোর জন্য প্যাকেজ কিনে নিলাম। অনেক দিনের শখ বলে কথা!

বাঘের লেজ দিয়ে কান চুলকানো হচ্ছে =D
বাঘটা সুন্দর তাকায়ে আছে =D

এরপর সেখান থেকে বের হয়ে ম্যাপে দেখলাম আশে পাশে কি আছে? Nong Nooch Tropical Garden পেলাম। এরপর ট্যাক্সি নিয়ে রওনা হলাম। সবেচেয় বড় ভুলটা করলাম এখানেই। Nong Nooch Tropical Garden এ কখনও একা যাওয়া উচিত না। এজেন্সি বা অনলাইন থেকে প্যাকেজ কিনে নিয়ে যেতে হবে। কারণ এটি শহর থেকে অনেক দূরে। কোন পাবলিক ট্রান্সপোর্ট নেই যাওয়ার জন্য।

তবে যেয়ে ৮০০ বাথ দিয়ে গার্ডেন ঘোরা ‌+ শো দেখার টিকিট কিনে নিলাম। শো গুলো ছিলো অসাধারণ। থাইল্যান্ডের ট্রেডিশনাল নাচ থেকে শুরু করে অনেক কিছুই ছিলো। প্রথম শো তে।

Nong Nooch Tropical Garden এর থাই শো।

শো তে মনে হচ্ছিলো রুপকথার কোন দেশে আছি। এরপর এ গেলাম Elephant show দেখতে চরম মজার শো ছিলো।

সবচেয়ে মজার ছিল‌ হাতির শুঁড় দিয়ে ছবি আঁকা তা একটি টি-শার্টে। আমি শো শেষে লোভ সামলাতে না পেরে ২৫০ বাথ দিয়ে একটি টি-শার্টও কিনে নিয়েছিলাম। শো শেষে বের হলাম Garden টা ঘুরে দেখতে। কেউ যদি Nong Nooch Tropical Garden দেখতে যান আমি অনুরোধ করব পুরো দিন হাতে রেখে যেতে। স্বর্গের মত সুন্দর একটা জায়গা।

French Garden 1 at Nong Nooch Tropical Garden

Nong Nooch Tropical Garden থেকে বের হয়ে একা আসতে অনেক সমস্যায় পড়লাম। অনেক কষ্টে একটা Taxi মানে পি-কাপ এর মত যেগুলো ওগুলো ২০০ বাথ দিয়ে walking street এ গিয়ে ঘুরতে শুরু করলাম। walking street একটা লোকাল দোকান থেকে 30.12 রেটে ডলার ভাঙিয়ে ঘোরা শুরু করলাম। একটু ঘোরাঘুরি করে রাতে খাবার খেয়ে চলে গেলাম হোস্টেলে ঘুমাতে। সেদিনের মত ঘোরাঘুরি আমার শেষ।

সকালে ঘুম থেকে উঠে হোস্টেল থেকে চেক আউট করে FamilyMart থেকে নাস্তা করে চললাম বিচে। একটু পর চলে গেলাম Koh Larn দ্বীপের উদ্দেশ্যে। Pattaya City Sign এর সামনে থেকে Ferry ঘাট। সেখান থেকে ৩০ বাথে টিকিট করে যাত্রা শুরু করলাম Koh Larn বা Koh Lan এর উদ্দেশ্যে। এই দ্বীপ টিকে কোরাল দ্বীপও বলা হয়ে থাকে। খুব বেশি দূরত্ব না। ৩০-৪০ মিনিটের ভিতরই দ্বীপে এসে গেলাম। দ্বীপটি অসাধারণ সুন্দর। কেউ বাইক চালাতে পারলে আরও ভালো। ৩০০ বাথে সারা দিনের জন্য বাইক পাওয়া যায়। চারপাশের স্বচ্ছ পানি আর ছবির মতন সুন্দর দ্বীপটি। দ্বীপটি মূলত পাহাড়ী দ্বীপ।

Tawaen beach pier, Koh Larn

দ্বীপে ঘন্টা কয়েক ঘুরা ঘুরি করে আবার ফেরত আসলাম পাতায়াতে। হোস্টেলে এসে লাগেজ নিয়ে বের হয়ে পড়লাম বাস স্ট্যান্ডে। বলা প্রয়োজন পাতায়াতে ব্যাংককের জন্য ২ টা বাস স্টপেজ আছে একটা এয়ারপোর্টে যায় আর একটা Ekkamai তে আসার জন্য। Ekkamai ব্যাংকক শহরের ভিতরের স্টপেজ। এখান থেকে bts এ প্রায় সব জায়গায় যাওয়া যায়। তবে ট্যাক্সি ড্রাইভারকে Bus Terminal Pattaya -Bangkok এর কথা বললে নিয়ে যাবে সেখানে। এটা বেশ দূরে ১৫০ বাথের মত ভাড়া পড়বে walking street থেকে। একটু দরদাম করে নিবেন।

ব্যাস আমার পাতায়া ভ্রমণ শেষ এখানেই। চললাম ব্যাংককের উদ্দেশ্য।

২য় পর্বটি পড়ুন এখানেঃ https://medium.com/@smsnobin77/bangkok-pattaya-2-2019-579e07fd846a

--

--

S M Sarwar Nobin

Graduate Research Assistant at UTRGV, USA and Freelance Email Signature Developer